16.8 C
New York
Monday, November 9, 2020

ভাবনার পরিবর্তন

গোপনে মোনাজাতে তুমি তাকে চাও… কিন্তু অধিকাংশ ক্ষেত্রেই তুমি তাকে পাও না… প্রতিটা মোনাজাতে চেয়েও কেনো তাকে পাও না সেটার কোনো ব্যাখ্যা তুমি খুজে পাও না… এইজন্য সৃষ্টিকর্তার প্রতি তোমার অভিমান হয়… এতো করে চেয়েও কেনো পাও না সেটা ভেবে তোমার আফসোসের অন্ত নেই… তুমি তোমার মোনাজাতে যাকে চেয়েছো সে হয়তো তার গোপন মোনাজাতে অন্য কাউকে চেয়েছে… তাই হয়তো স্রষ্টা তোমার দোয়া কবুল করেনি… আবার এমনও হতে পারে সেই মানুষটাও তার মোনাজাতে তোমাকে চাইতো… কিন্তু উপরওয়ালা তো ভবিষ্যত জানেন… তিনি হয়তো দেখেছেন তোমরা দুইজন একসাথে থাকলে আরো বেশি কষ্ট পাবে… তাই হয়তো তোমাদের দুইজনের দোয়াই কবুল করেননি…

আমাদের আশেপাশে এমন অনেকেই আছে যারা দীর্ঘদিন সম্পর্কে থাকার পর বিয়ে করেছে… তারপরও তাদের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হয়… এমনও উদাহরণ আছে যে অনেকেরই বিচ্ছেদ হয়ে গেছে… প্রতিদিন প্রার্থনায় তুমি তাকে চেয়েছো… আর আল্লাহ তোমার মঙ্গল চেয়েছেন বলেই তাকে তোমার সাথে মিলিয়ে দেয়নি… ভবিষ্যতের একটা অজানা বড় বিপদ থেকে তোমাকে বাচিয়েছেন তিনি… তাই উনার প্রতি অভিমান না করে বলেই ফেলো ‘আলহামদুলিল্লাহ’… চিন্তা করো না… তুমি যাকে চেয়েছিলে তার চেয়ে অনেকগুন ভালো কাউকে তিনি তোমার কাছে পাঠাবেন…

এক্স-কে ‘এক্স’ না ভাবলেই জীবনের সমীকরণটা পানির মতো সহজ হয়ে যায়… এক্স প্রতারণা করেছে, ভালো কথা… তো এখন কি করবে…??? তাকে ব্লক করবে…??? আর তারপর…??? অন্য একটা ‘FAKE ID’ দিয়ে দিনে হাজারবার দেখবেন সে কার সাথে কি করছে…??? একবার ভেবে দেখো কাজটা কেমন… আবেগের বশে হয়তো এটা অনেকেই করে থাকে… কিন্তু বিশ্বাস করো এরচেয়ে জঘন্য আর নিচু কাজ আর নেই… ভালো থাকার এই উপায়টা দিনশেষে একদমই কাজের নয়… সত্যি বলছি এইভাবে ভালো থাকা যায় না… তুমি যদি ভালো থাকতেই চাও তাহলে ব্লক করার দরকার নেই… তুমি তোমার মতো করেই থাকো আর ‘এক্স’-কে তার মতো করে থাকতে দাও… তার ছবি, পোস্ট তোমাকে যন্ত্রণা দেয়…??? তাহলে ‘UNFOLLOW’ করে দাও… তারপর নিজের মতো করে ‘MOVE ON’ করতে থাকো…

আরেকটা কথা… ‘এক্স’ কোনো গালি বা খারাপ শব্দ নয়… একটা সময় যাকে ভালোবেসেছিলে তাকে আজ ‘BREAK-UP’ শব্দটা দিয়ে বিচার করতে যেয়ো না… পরিস্থিতি মানুষকে অনেক ভুল সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য করে… ‘এক্স’-ও একজন মানুষ… আর মানুষ মাত্রই ভুল… মাফ করে দাও সেই মানুষটাকে… কিন্তু তার মানে এই না যে সব আঘাত, কষ্ট, যন্ত্রণা ভুলে আবার তার সাথে শূণ্যের বাসর সাজাবে… মাফ করে দেয়া মানে জীবন থেকে তার অধ্যায়টা বন্ধ করে দেয়া…

শুধুমাত্র প্রচন্ড ভালোবাসা থাকলেই সেই মানুষটাকে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয়া বোকামি… যদি না তার পরিবার তোমাকে পছন্দ করে… কারণ তোমরা দুইজন ভালো থাকার শত চেষ্টা করলেও পরিবার তোমাদের সুখে থাকতে দিবে না… তুমি হয়তো তাদের সাথে যুদ্ধ করবে… কিন্তু অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি তুমি সেই যুদ্ধে তোমার ভালোবাসার মানুষটার সাহায্য খুব বেশি পাবে না… আর সবচেয়ে বড় কথা সেই মানুষটাও তো একই পরিবারের… তার আচরণ কি আলাদা হবে…??? তার আবেগ আর তোমার ভালোবাসার জোর অবশ্যই তার পারিবারিক শিক্ষার চেয়ে বেশি নয়… আর তখন সুখে থাকার অভিনয় করতে করতে তুমি একটা সময় ক্লান্ত হয়ে যাবে… কষ্ট পেতে পেতে তোমার ভিতরটা ক্ষত-বিক্ষত হতে থাকবে…

বিয়ের আগে সম্পর্ক করতে শুধু দুইজন মানুষই যথেষ্ট… কিন্তু সংসার সম্পূর্ন আলাদা ব্যাপার… ‘SACRIFICE’ করতে করতে তুমি ক্লান্ত হয়ে পড়বে…তোমার সবকিছুতে দোষ খুজতে খুজতে সেই পরিবারটা তোমাকে দ্বিধাগ্রস্থ করে ফেলবে…

ধরেই নিলাম কষ্ট করে পরিবারকে মানিয়ে নিলে… কিন্তু তারপরও অনেক কিছুই বাকি থেকে যায়… কেননা তুমি যত ভালোই হও না কেনো কিংবা যতো ভালো কাজই করো না কেনো সেই পরিবারের কাছে সেগুলোর মূল্য থাকবে না… ভাবছো নিজের ব্যবহার দিয়ে তাদের মন জয় করবে… আচ্ছা ঠিক কতোদিন চেষ্টা করবে সেজন্য…??? ধরেই নিলাম সেই সময়টা ১/২ বছর… কিন্তু তারপরও সমস্যার সমাধান হবে না… তার চেয়ে ‘BREAK-UP’-ই ভালো নয় কি…??? সাময়িকভাবে হয়তো মনে হতে পারে যে তাকে ছাড়া থাকা অসম্ভব… কিন্তু জীবন তো এখনো অনেক বাকি আছে…

Koushik Ahmed
I’m just human, I have weakness, I make mistakes and I experience sadness; But I learn from all these things to make me a better person.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয়

তোমাকেই খুঁজি

বড় বড় ঢেউ গুনছো তুমি লঞ্চের ছাঁদে বসে, অর্ধ চাঁদের জোছনায় তুমি ভাবনায় যাচ্ছো ডুবে। ঝড়ো হাওয়ায় উড়ছে দেখো, তোমার কালো চুল। কল্পনাতে ভাবছি নাকি ভুল? একি! তোমার হাতে পদ্ম ফুল, পেলে...

নিস্তব্ধতার গন্ডিজাল

ঝড়ের চঞ্চল হাওয়া বয়ে যায় আমার নীড়ের পাশে, দুটি চোখ মেলে তাকিয়ে থাকি ওই নীল আকাশে। মনটা হয়ে যায় তখন, আনমনা আর উদাসিন। কালো মেঘেরা বলে তাদের গল্প কথা, নীড়হীন...

হয়তো

হয়তো... কখনো সকালের রোদ্দুর হয়ে তোমার ঘুম ভাঙ্গাবো... তোমার চায়ের কাপে ছোট্ট একটা পিপড়ে হয়ে ভেসে থাকবো... কখনো লাল মেহেদী হয়ে তোমার হাতে আকা থাকবো... কিংবা কখনো চশমার...

স্বপ্ন

স্বপ্ন যে এতোটা বাস্তবিক আর স্পর্শকাতর অনুভুতি দিতে পারে সেই ব্যাপারটা কিছুদিন আগেও আমার অজানা ছিলো... জ্ঞান হবার পর থেকে আজ অব্দি ভালো-খারাপ অনেক...